ঢাকা-চট্টগ্রাম-সিলেট-নোয়াখালী রেল যোগাযোগ ১২ ঘণ্টা পর স্বাভাবিক।

0 2

ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-নোয়াখালী রেলপথে প্রায় ১২ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর রেল চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালে  রেলপথে ব্যারিকেড সৃষ্টি করায় নিরাপত্তাজনিত কারণে গতকাল রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার পর থেকে এই রুটগুলোতে ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হয়। পরবর্তীতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হরে গতকাল রাত ১০টার দিকে ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রেলওয়ে পুলিশের চট্টগ্রাম অঞ্চলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. কামরুল হাসান।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল করিম বলেন, ‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় গতকাল রাত ১০টা থেকে পুনরায় ট্রেন চলাচল শুরু করেছে।’

এর আগে গতকাল সকাল নয়টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রথমে চট্টগ্রামগামী সোনার বাংলা এক্সপ্রেসে ভাঙচুর চালানো হয়।  রেললাইনের নাট-বল্টু খুলে নেওয়ার পাশাপাশি লাইনের ওপর কংক্রিটের স্ল্যাবও ফেলে রাখে হরতালকারীরা। আশুগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মাঝখানে ১৮ নম্বর রেলসেতুতেও আগুন দেওয়া হয়। দুপুরের দিকে আশুগঞ্জ রেলস্টেশনে হরতালকারীরা জড়ো হয়। এই গোলযোগের মধ্যে বিভিন্ন স্থানে আটকা পড়েছে বেশ কয়েকটি ট্রেন।

হেফাজতের নেতাকর্মীদের তাণ্ডবে এবং তাদের দেওয়া আগুনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনের সিগন্যাল সিস্টেমসহ সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়ায় গত শনিবার থেকে ওই স্টেশনে সব ট্রেনের যাত্রা বিরতি বাতিল করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দক্ষিণ পৈরতলা এলাকায় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেনে হামলা ও ভাঙচুর করে হেফাজতে ইসলামের কর্মী সমর্থকরা। এতে ট্রেনের ভেতরে থাকা অন্তত ১০ যাত্রী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.