মানসম্মত যাত্রীসেবা নিশ্চিত করতে বিমানের প্রতি নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর।

0 17

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া নতুন বিমানগুলোর সুরক্ষা ও মানসম্মত যাত্রীসেবা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন ।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে সদ্য যুক্ত হওয়া সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সংবলিত নতুন দ্বিতীয় ও তৃতীয় ড্যাশ ৮-৪০০ ‘আকাশতরী’ ও ‘শ্বেতবলাকা’ উদ্বোধনের সময় তিনি এই নির্দেশনা দেন।কানাডার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডি হ্যাভিল্যান্ড বোম্বার্ডিয়ার অ্যারোস্পেস থেকে বাংলাদেশে আসে ‘শ্বেতবলাকা’। নতুন এই উড়োজাহাজের আসন সংখ্যা ৭৪। কানাডা সরকারের সঙ্গে জি-টু-জি চুক্তিতে কেনা তিনটি ড্যাশ-৮ উড়োজাহাজের মধ্যে ২০২০ সালের ২৭ ডিসেম্বর প্রথম এবং এ বছর ২৪ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় উড়োজাহাজ বিমানের বহরে যুক্ত হয়।বর্তমানে বিমান বহরে চারটি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, চারটি বোয়িং ৭৮৭-৮, দুটি বোয়িং ৭৮৭-৯, ছয়টি বোয়িং ৭৩৭ এবং চারটি ড্যাশ ৮-৪০০ উড়োজাহাজ আছে। তৃতীয় ড্যাশ-৮ যুক্ত হওয়ায় বিমান বহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা হলো ২১টি।

শেখ হাসিনা আকাশতরী’ ও ‘শ্বেতবলাকা’ উড়োজাহাজের উদ্বোধনের সময় বলেন, ‘আমরা এর আগেও দুটি বিমান ক্রয় করেছি। এখন আবার দুটো বিমান আজ উদ্বোধন হচ্ছে। যেগুলোর নাম দিয়েছি- উড়োজাহাজ আকাশতরী ও শ্বেতবলাকা। এগুলো যেন সুন্দরভাবে সুরক্ষিত থাকে, যাত্রীসেবা যেন মানসম্মত হয়, এদিকে সবাই খেয়াল রাখবেন।’বিমান কর্মকর্তাদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এটা আমাদের দেশ। লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে এদেশ পেয়েছি। এ দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করা সকলের দায়িত্ব। আমাদের যাত্রীসেবা যত উন্নত করতে পারব, দেশের লাভ হবে। সেটাই আমরা চাই।’

এ সময় তিনি আকাশতরী’ ও ‘শ্বেতবলাকা’ আধুনিক প্রযুক্তির উল্লেখ করে বলেন, ‘এটা অত্যন্ত নিরাপদ ও আধুনিক প্রযুক্তির। যারা চিন্তা করেন তাদের জন্য এটা নিরাপদ হবে। চিন্তার বিষয় কিছু থাকবে না।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.