স্বস্তিতে ব্যবহারকারীরা, ৩ দিন পর স্বাভাবিক ফেসবুক

0 13
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী আয়োজনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শুক্রবার বাংলাদেশ সফরে আসার দিন থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা হঠাৎ বিড়ম্বনায় পড়েন।

অনেকেই স্বাভাবিক পদ্ধতিতে ফেসবুক ও মেসেঞ্জার ব্যবহার করতে পারছিলেন না। এভাবেই কেটে যায় তিন দিন। জনপ্রিয় এই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বন্ধ থাকায় অনেকেই অস্বস্তিতে ছিলেন। অবশেষে এই সমস্যা কেটেছে। এখন স্বাভাবিকভাবে ফেসবুক ব্যবহার করতে পারছেন সবাই। ফলে স্বস্তি ফিরে এসেছে ব্যবহারকারীদের মধ্যে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি এর আগে ‘আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অনুরোধে’ ফেসবুক বন্ধের কথা বললেও নতুন করে আর কোনো বক্তব্য দেয়নি।এর আগে শনিবার ফেসবুক বাংলাদেশে তাদের জনসংযোগ প্রতিনিধি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে জানিয়েছিল যে, তাদের একাধিক সেবা সীমিত করার বিষয়ে তারা অবগত আছে। তারা আশা করেছিল দ্রুতই তাদের পূর্ণাঙ্গ সেবা আবারো সচল হবে। এর দু’দিন পর সোমবার সন্ধ্যার পর থেকে ফেসবুক স্বাভাবিক হয়ে আসে। যদিও বিষয়টি নিয়ে বিটিআরসি বা ফেসবুক-কোনো পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য আসেনি।

বাংলাদেশে নরেন্দ্র মোদির সফরের সময় যখন বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ ও সংঘর্ষে কমপক্ষে ১২ জন নিহত হন। এই সময়টায় ফেসবুক নিয়ে ব্যবহারকারীরা সমস্যায় পড়েন।যদিও ভিপিএন বা ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি ব্যাবহার করে অনেক বাংলাদেশী ফেসবুক ব্যবহার করেছেন। তারপরও ব্যবহারকারীদের মধ্যে অনেকে যাদের অনলাইনে ব্যবসাসহ নানা কাজে সম্পৃক্ততা আছে তারা বলছেন, তিন দিনে তারা বেশ ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।স্যাভেরিস ক্লোদিং লাইনের সত্ত্বাধিকারী কাকলী তানভীর বলছেন, ‘ব্যবসার ভীষণ রকম ক্ষতি হয়েছে। কারণ অর্ডার নেয়া, পণ্য দেখানো সব কিছু তো মেসেঞ্জার ব্যবহার করেই করতাম

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.