ব্যবসায়ী হত্যা মামলায় জাপানি হান্নানসহ ৮ জনকে রিমান্ড চায় পুলিশ।

1 16

ঢাকায় দক্ষিণখানে আওয়ামীলীগ নেতার গুলিতে ব্যবসায়ী নিহত হওয়ার ঘটনায় একটি হত্যা মামলা করেছে নিহত আবদুর রশিদের বড় ভাই হারুন অর রশিদ। বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে এ মামলা করা হয়।

এ মামলায় আমিনুল ইসলাম হান্নান ওরফে জাপানি হান্নানকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। এছাড়াও এজাহারে ১৩ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।এছাড়া মামলায় ছয় থেকে সাতজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়। অন্য আসামিরা হলেন- ইকরামুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, আলআমিন প্রধান, জহুরুল ইসলাম, মো. খুরশীদ আলম মো. মোশররফ হোসেন, নুরুননবী। মামলায় আটজন আসামিকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। দক্ষিণখান থানার মামলা নম্বর-৪২। মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছেন দক্ষিণখান থানার পরিদর্শক (এসআই) আজহারুল ইসলাম।দক্ষিণখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিকদার মো. শামীম হোসেন ঢাকাটাইমসকে বলেন, আমরা গ্রেপ্তারকৃত আটজন আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠিয়েছি। তবে এখনও রিমান্ডের কোনো আদেশ পাইনি।

গতকাল রাজধানীর দক্ষিণখানে শর্টগানের গুলিতে আবদুর রশিদ নামে এক ব্যবসায়ী নিহত হন। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও দাবিকৃত চাঁদা পরিশোধ না করায় আইনুশবাগ চাঁদনগর এলাকায় আওয়ামী লীগ নেতা আমিনুল ইসলাম হান্নান ওরফে জাপানি হান্নানের গুলিতে প্রাণ হারান স্থানীয় ওই ব্যবসায়ী। এর পর উত্তেজিত জনতা জাপানি হান্নানের গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও বাড়িতে ভাঙচুর চালায়। এরই মধ্যে পুলিশ হান্নানসহ আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে। বাসায় তল্লাশি চালিয়ে জব্দ করেছে দুটি শটগান ও পিস্তল।

আবদুর রশীদ পরিবার নিয়ে থাকতেন আশকোনা পানির পাম্পের পাশে।নিহত আবদুর রশীদ আশকোনা বাজার এলাকায় হাজি কমরউদ্দিন টাওয়ারে রড, সিমেন্ট ও বালুর ব্যবসা করতেন। তার বাবার নাম আবদুল মালেক।

Leave A Reply

Your email address will not be published.