নারী উদ্যোক্তাদের সামনে এগিয়ে নিতে নারীবান্ধব নীতি গ্রহণ জরুরি : শিরীন শারমিন চৌধুরী

1 20

করোনার ক্ষতি পুষিয়ে নারী উদ্যোক্তাদের সামনে এগিয়ে নিতে নারীবান্ধব নীতি গ্রহণ জরুরি বলেছেন, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী  । তাই নারীবান্ধব রাজস্ব নীতি গ্রহণের পাশাপাশি কর আরোপ প্রক্রিয়ার সহজীকরণ প্রয়োজন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোভিড সংকট মোকাবেলায় ঘোষিত প্রণোদনা মাঝারি ও ক্ষদ্র নারী উদ্যোক্তাগণ যেন সহজে পেয়ে উপকৃত হতে পারেন, সেজন্য সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা দরকার। এসময় ডিজিটাল ডিভাইডের শিকার হয়ে নারীরা যেন তথ্য-প্রযুক্তিতে পিছিয়ে না পরে সেদিকে সকলকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি।

এতে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক ড. সুলতানা শফি। আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি এমপি’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন মতিয়া চৌধুরী এমপি।

বক্তব্য রাখেন কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিয়া খাতুন, সাধারণ সম্পাদক মাহবুবা বেগম। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মাহবুবা নাসরিন ।

রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০২১ উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপকমিটি আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের দিয়ে গেছেন নারী-পুরুষ সমানাধিকার প্রতিষ্ঠার আইনী কাঠামো ও প্রতিষ্ঠানিক ভীত। নারী-পুরুষ সকলের মৌলিক অধিকার তিনি সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত করে গেছেন। এই আইনী কাঠামোর ভীতের উপর দাঁড়িয়ে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশের নারী সমাজ।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই আজ নারীদের অপ্রতিরোধ্য অগ্রগতি। প্রধানমন্ত্রী নারীর ক্ষমতায়নে যে কাজ করছেন, তা সমগ্র বিশ্বে  প্রশংসিত। কোভিড মোকাবেলায় অসাধারণ নেতৃত্বের জন্য সম্প্রতি কমনওয়েলথ কর্তৃক বিশ্বের তিনজন প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে অন্যতম হিসেবে ইন্সপাইরেশনাল লিডারশিপ সম্মাননা তিনি অর্জন করেছেন যা সমগ্র জাতির জন্য গৌরবের।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, নারীদের অধিকতর অগ্রগায়নের জন্য অবকাঠামোগত সকল সুবিধা নিশ্চিত জরুরি। তথ্য-প্রযুক্তিভিত্তিক প্রশিক্ষণ তৃণমূল নারীদের জন্য অবারিত করতে হবে যেন তারা নিজেদের জীবনমান উন্নয়নে তা কাজে লাগাতে পারে। শ্রমবাজারে নারীদের অধিকতর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সকলকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান স্পিকার।

Leave A Reply

Your email address will not be published.