হাতিয়াতে কোষ্টগার্ড অভিযান চালিয়ে অস্রসহ ৭ জলদস্যুকে আটক।

0 11
কোষ্টগার্ড অভিযান চালিয়ে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র, এক রাউন্ড গুলি ও চারটি দেশীয় রামদাসহ ৭ জলদস্যুকে আটক করেছেন। শনিবার সন্ধ্যায় নোয়াখালী দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার জাগলার চর থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।
আটক জলদস্যুরা হলেন- লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার ম্রী হরি মজুমদারের ছেলে শ্রী হরী কুমার (৩৫), নোয়াখালী জেলার সদর উপজেলার আন্ডারচর গ্রামের শফি উল্যার ছেলে মাইন উদ্দিন (৩৩), খুলনা জেলার মতলবগঞ্জ উপজেলার মো. নজরুলের ছেলে মো. বাবু (২১), চট্টগ্রাম জেলার সন্ধীপ উপজেলার মুছাপুর গ্রামের মো. শামছুল আলমের ছেলে সাদ্দাম হোসেন (২৩), নোয়াখালী জেলার সদর উপজেলার বেলাল নগর গ্রামের আবুল মালেকের ছেলে মাসুদ হোসেন (৩৩), লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চর আফজাল গ্রামের আবুল কালামের ছেলে দিদার উদ্দিন (২৫), নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার আলমপুর গ্রামের আবুল গোফরানের ছেলে আকবর (২২)।
হাতিয়া কোষ্টগার্ড সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার রাতে মেঘনা নদী থেকে হাতিয়ার চরঈশ্বর ইউনিয়নের রোগনাথ চন্দ্র জলদাস ও মকুল চন্দ্র জলদাস নামে দুই জেলেকে অপহরণ করে দস্যুরা। পরে দস্যুদের দেওয়া বিকাশ নম্বরে মুক্তিপনের ৪০ হাজার টাকা দিলে তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এই সংবাদ পেয়ে কোষ্টগার্ড প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিকাশের সেই নম্বরটি দিয়ে দস্যুদেরকে হাতিয়ার জাগলার চরে অবস্থান নিশ্চিত হয়।
পরে কোষ্টগার্ডের একটি টিম শনিবার বিকালে স্টেশন কমান্ডার বিশ্বজিৎ বড়ুয়ার নেতৃত্বে জাগলার চরে অভিযান চালায়। এ সময় তারা ৭ জলদস্যুকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র ও এক রাউন্ড গুলিসহ আটক করে।
এ ব্যাপারে কোষ্টগার্ডের স্টেশন কমান্ডার লে. বিশ্বজিৎ বড়ুয়া জানান, কোষ্টগার্ডের নিয়মিত ডিউটির অংশ এটি। আটক জলদস্যুদের দ্রুতই হাতিয়া থানাই সৌপার্দ করা হবে। এ বিষয়ে কোষ্টগার্ড বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে আটক জলদস্যুকে বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন
Leave A Reply

Your email address will not be published.