৭ মার্চ আওয়ামী লীগের ২ গ্রুপের ৪টি কর্মসূচি নোয়াখালীতে।

0 14

নোয়াখালীতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাদের দুই গ্রুপ চারটি পৃথক কর্মসূচির আয়োজন করেছে।রবিবার সকাল ১১টায় জেলা শহর মাইজদীর হাউজিং বালুর মাঠে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ উপলক্ষে  আলোচনা সভা ডাকেন শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদ উল্যা খাঁন সোহেল।

অন্যদিকে, আজ দুপুর ৩টায় সোনাপুর কলেজ মাঠে আলোচনা ডেকেছেন শহীদ উল্যা খাঁনের প্রতিপক্ষ সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর অনুসারী শহর আওয়ামী লীগ সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী গতকাল শনিবার বিকেলে ফেসবুক লাইভে এসে  বলেন, ‘নোয়াখালী আওয়ামী লীগ এক ও অভিন্ন। আমাদের মধ্যে কোনো ভেদাভেদ নেই। কোন ব্যক্তি বিশেষের জন্য আওয়ামী লীগ নয়। কেউ লাইভে এসে কিছু বললেই আওয়ামী লীগের ক্ষতি এটা সেই আওয়ামী লীগ না। নোয়াখালী আওয়ামী লীগ অনেক স্ট্রং।’

রোববার বিকালে তিনি ৭ মার্চ উপলক্ষে সোনাপুর কলেজ মাঠে আয়োজিত আলোচনা সভায় নেতাকর্মীদের উপস্থিত হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, ‘যারা এমপি একরামকে ভালোবাসেন, যারা বঙ্গবন্ধুর প্রেমিক ও শেখ হাসিনার সৈনিক, তারা সেখানে উপস্থিত থাকবেন।’

একই সময়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের কাদের মির্জার প্রতিপক্ষ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান ডাকবাংলোতে আলোচনা সভাসহ নানা কর্মসূচির আয়োজন করছেন।

তাছাড়াও, জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌর মেয়র, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর ভাই আবদুল কাদের মির্জা বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে সকাল ১১টায় ৭ মার্চ উপলক্ষে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন।

আওয়ামী লীগের পৃথক পৃথক কর্মসূচির বিষয়ে নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন বলেন, ‘এখানে কোনো উত্তেজনা নেই। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সজাগ রয়েছে। এছাড়াও, অনুষ্ঠানগুলো পৃথক পৃথক স্থানে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.