অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের তারেক কুরআনের হাফেজ ।

0 9

অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের তারেক কুরআনের হাফেজ ।আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ খেলতে ভারত যাচ্ছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। মঙ্গলবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আফগান যুবাদের বিপক্ষে সিরিজ খেলার জন্য ১৬ সদস্যের স্কোয়াড চূড়ান্ত করেছে। যদিও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়া হয়নি এখনো। বিলম্বে হলেও চূড়ান্ত এই দলে সুযোগ পেয়েছেন হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার চর নুরআহমদ গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে কুরআনের হাফেজ মহিউদ্দিন তারেক।

তারেক ছোটবেলা থেকেই পড়াশুনার পাশাপাশি ক্রিকেটকে আপন করে নিয়েছিলেন। কুরআনে হাফেজ তারেক বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপি) পাঁচ বছর আগে ক্লাস সেভেনে ভর্তি হন। ইতোমধ্যে অনূর্ধ্ব ১৬, ১৭, ১৮ দলে খেলেছেন। তারেক পেস বোলার। তবে ব্যাটিং খুব ভালো করেন। সম্প্রতি ইয়ুথ টুর্নামেন্টে অলরাউন্ডার পারফরমেন্সের জন্য বিসিবি ঘোষিত ৪৫ জনের প্রাথমিক দলে সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি।

তারেকের বড় ভাই মিজানুর রহমান রুমান বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই তারেকের ক্রিকেটের প্রতি অনেক আগ্রহ ছিল। হাফেজি পড়ার পাশাপাশি নিয়মিত ক্রিকেট খেলতো। তারেক যে বছর কুরআনে হাফেজ হয়, ওই বছরই বিকেএসপিতে সুযোগ পায়। আমাদের স্বপ্ন জাতীয় দলে শায়েস্তাগঞ্জের প্রতিনিধিত্ব করবে সে।’

উল্লেখ্য, করোনা মহামারির কারণে অনূর্ধ্ব-১৯ দল গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল দেরিতে। প্রাথমিক দল নিয়ে বেশ কয়েকটি ক্যাম্পের পর অবশেষে মঙ্গলবার চূড়ান্ত করা হয়েছে স্কোয়াড। আফগানিস্তানের বিপক্ষে পাঁচটি ওয়ানডে ও একটি চার দিনের ম্যাচ খেলতে ১৫ মার্চ দিল্লির নয়ডায় যাবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। মূল স্কোয়াডে থাকা ১৬ ক্রিকেটার মঙ্গলবার মিরপুরের অ্যাকাডেমি ভবন ছেড়ে শেষ ধাপের প্রস্তুতি নিতে গেছেন বিকেএসপিতে।

সম্ভাব্য স্কোয়াড

ওপেনার : মফিজুল ইসলাম রবিন, ইফতেখার হোসেন ইফতি, প্রান্তিক নওরোজ নাবিল।

মিডল অর্ডার : মোঃ সাকিব শাহরিয়ার, মেহরব হোসেন, আইচ মোল্লা, তৌহিদুল ইসলাম ফেরদৌস, তাহজিবুল ইসলাম সিয়াম।

পেস বোলার : রিপন মন্ডল, আরিফ আহমেদ অনিক, আশিকুর জামান, হাফেজ মহিউদ্দিন তারেক।

স্পিনার : আহসান হাবিব, নাইমুর রহমান নয়ন, শামসুল ইসলাম ইপন।

অলরাউন্ডার : গোলার কিবরিয়া।

করোনা মহামারির মধ্যেই গত বছরের আগস্টে বিকেএসপিতে ৪৬ ক্রিকেটার নিয়ে শুরু হয় যুবাদের ক্যাম্প। সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে বেশ কয়েকটি ধাপে চলে অনুশীলন। ওই সময়ে নিজেদের মধ্যে ২০টি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন যুবাদের উত্তরসূরিরা। অনুশীলন ও ম্যাচের পারফরম্যান্স দেখে দল চূড়ান্ত করেছেন নির্বাচকরা।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.